অসহায় বৃদ্ধার গাছ কেটে এলজিইডির প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা


resma প্রকাশিত: ৯:১১ অপরাহ্ণ ১৭ মে , ২০২২
অসহায় বৃদ্ধার গাছ কেটে  এলজিইডির প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা

এম আর অভি , বরগুনা প্রতিনিধি: বরগুনায় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) কর্তৃপক্ষ ইসমাঈল ভূইয়া নামের এক অসহায় গরীব বৃদ্ধার ভোগ-দখলীয় জমি দখল করে ও জমির গাছ-পালা কেটে ৭০ মিটার পিসি গার্ডার ব্রিজ নির্মাণের চেষ্টা করছে এমন অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় বরগুনার স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি’র) নির্বাহী প্রকৌশলী ও ব্রিজের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ঢাকা মতিঝিল সি/এ মার্কেটের মেসার্স নিয়াজ ট্রেডার্স এর মালিক নিয়াজ আহম্মেদ খানকে বিবাদী করে বরগুনা বিজ্ঞ সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে ওই বৃদ্ধা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন ।

মামলা সুত্রে জানাগেছে, বরগুনা সদর উপজেলার আয়লা পাতাকাটা ইউনিয়নের পূর্ব কেওড়াবুনিয়া গ্রামের অসহায় গরীব বৃদ্ধা ইসমাঈল ভূইয়ার পোড়া কাটা মৌজার ভোগ-দখলী ভূমিতে কোন অনুমতি ছাড়াই তার রোপনকৃত রেইনট্রি, মেহগনি, চাম্বল ও তালগাছ, কেটে এ বছরের (১এপ্রিল) শুক্রবার ৭০ মিটার দীর্ঘ পিসি গার্ডার ব্রিজ নির্মাণ করার জন্য পাইলিং করার হুমকি দেয় ও পায়তার করে বিবাদীরা।

এ কারণে ইসমাঈল ভূইয়া তার ভোগ-দখলী জমিতে গাছ-পালা কেটে ৭০ মিটার দীর্ঘ পিসি গার্ডার ব্রিজ নির্মাণ করার পায়তারা করার অভিযোগ এনে বরগুনা এলজিইডি নির্বাহী প্রকৌশলী ও ব্রিজের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ঢাকা মতিঝিল সিএ মার্কেটের মেসার্স নিয়াজ ট্রেডাসর্ এর মালিক নিয়াজ আহম্মেদ খানকে বিবাদী করে গত ৫ এপ্রিল আদালতে একটি মামলা দায়ের করে।
বাদী মো.ইসমাঈল ভূইয়া প্রতিবেদকে বলেন, আমি একজন অসহায় গরীব কৃষিজীবি মানুষ। আমার ঘর-বাড়ি ছাড়া আর কোন জমি-জমা নেই। বিবাদীরা আমার বাড়ি-ঘরের ভোগ দখলীয় জমি ও পারিবারিক কবরস্থান দখল করে জমির প্রায় ৫ থেকে ৬ লাখ টাকার গাছ-পালা কেটে ফেলেছে । পরিবেশ ধ্বংশ করে সেখানে পিসি গার্ডার ব্রিজ নির্মাণের পায়তারা চালাচ্ছে। আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে আদালতের শরনাপন্ন হয়েছি। আদালত নিষেজ্ঞা দিয়েছেন। আদালতের নিষেজ্ঞা অমান্য করে বিবাদীর লুকিয়ে লুকিয়ে কাজ করছে। তিনি আরও বলেন, বিবাদীর আমাকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি দামকি দিচ্ছে। মিথ্যা মামলা-মকদ্দমা দিয়ে আমাকে হয়রানি করা হুমকি দিচ্ছে। এখানে ব্রিজ নির্মাণ হলে ব্রিজের স্লোভে পড়ে আমার শেষ আশ্রয় টুকু বসত ঘরটিও হারাতে হবে। আমি এর সুষ্ঠ বিচার চাই।

বাদী পক্ষের আইনজীবি মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন জানান ,বাদীর অধিকার ক্ষর্ব হওয়ায় তার আবেদনে প্রেক্ষিতে বিজ্ঞ আদালত বিবাদীদের সংশ্লিষ্ট কর্মকান্ডে নিষেজ্ঞার আদেশ দিয়েছেন। আদালত পরবর্তী আদেশ না দেওয়া পর্যন্ত এ নিষেজ্ঞা বলবৎ থাকবে। তিনি আরও বলেন আমার মক্কেল আইন ও আদালতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল । তাই ব্রিজ নির্মাণের জমি একোয়ার না করে বিবাদীরা তার জমিতে অন-অধিকার প্রবেশ করে গাছ পালা কেটে ফেলে তার ব্যাপক ক্ষতি সাধন করায় তিনি (মক্কেল) আদালতের শরনাপন্ন হয়েছে।

বরগুনার স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর(এলজিইডি) নির্বাহী প্রকৌশলী সুপ্রিয় ব্যানার্জী এর কাছে মুঠোফোনে মামলা হয়েছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, জেনে জানাচ্ছি, তবে এর পরে কয়েক বার ফোন করলেও তিনি ফোন রিসিব করেনি।
উল্লেখ্য বরগুনা সদর উপজেলার আয়লাপাতাকাটা ইউনিয়নের নয়ার হাট পুরাকাটা সড়কে কেওড়াবুনিয়া খালে ওপর ৯ কোটি ২০লাখ একশত ৪ টাকা ব্যয়ে বরগুনা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) ডিআরএমইপি প্রকল্পের আওতায় ব্রিজটি নির্মাণের উদ্যোগ নেয়।