আগুয়েরো এখন আর ফুটবল দেখেন না 


asif প্রকাশিত: ১০:৫০ পূর্বাহ্ণ ২৩ ফেব্রুয়ারি , ২০২২
আগুয়েরো এখন আর ফুটবল দেখেন না 

ক্রীড়া ডেস্ক: ১৫ ডিসেম্বর ২০২১ দিনটি এখনও ফুটবলপ্রেমীদের মনে দাগ কেটে আছে। যেদিন বার্সার ক্যাম্প ন্যুতে চোখের জলে ফুটবলকে বিদায় বলেছিলেন সার্জিও আগুয়েরো। যে ফুটবল ছিল তার ধ্যানজ্ঞান। তাকে ছেড়ে এখন যে দিব্যি ভালো আছেন, তেমনও নয়। হয়তো মনকে আটকে রেখেছেন না শব্দ দিয়ে। সম্প্রতি টিওয়াইসি স্পোর্টস কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে যেমনটা বললেন এই আর্জেন্টাইন। প্রায় মনের মধ্যে একটা প্রশ্ন জাগে, আবার ফুটবলে ফেরা, কিন্তু একটু পরই মনে হয়- না, ফুটবল আর তার জন্য নয়। এমন আবেগী সব কথাই বলেছেন সেই সাক্ষাৎকারে।

দেশ আর ক্লাবের হয়ে যতদিন মাঠে ছিলেন, দাপিয়ে বেড়িয়েছেন আগুয়েরো। বলতে পারেন ফুটবল আকাশের ধ্রুবতারাও। দাপট দেখিয়ে খেলেছেন, গোল করেছেন, ট্রফি জিতেছেন, রেকর্ড ভেঙেছেন, গড়েছেন। ৩৩ বছর বয়সে আচমকা ধ্রুবতারার আলো কেড়ে নেয় হার্টের সমস্যা। সেই দিন এখন গত হয়েছে। তাই তো ফুটবল দেখা, সংবাদ পড়াও ছেড়ে দিয়েছেন আগুয়েরো, আজ আমি খেলতে চাই, কিন্তু ভয় আমাকে তাড়া করছে।

সব বড় প্রতিযোগিতার জন্য সবসময় সেরা অনুশীলনটা করতাম। আর এখন আমি ফুটবলইও দেখি না, সংবাদ পড়ি না, জানিও না কখন কী হচ্ছে। বন্ধুদের মতো এখন নিজের পছন্দের বিষয়গুলোতে বেশি মনোযোগ দিচ্ছি। মাঝেমধ্যে ফুটবলে ফেরার কথা মাথায় আসে। কিন্তু কিছুক্ষণ পর মনে হয়, এটা (ফুটবল খেলা) আমি আর পারব না। এখন আমার বিশ্রাম নেওয়ার পালা। বর্তমানে যেভাবে সময়টা কাটাচ্ছি, তাতে আমি আনন্দিত।

ম্যানসিটিতে তিনি রাজ করেছেন লম্বা সময়। জিতেছেন ১৫টি ট্রফি। প্রিমিয়ার লিগের সেরা আক্রমণভাগের একজন ছিলেন। চার ক্লাব মিলিয়ে করেছেন সাড়ে তিনশর বেশি গোল। আর দেশের হয়েও একটা ট্রফি (কোপা আমেরিকা) জয়ের সঙ্গী হয়েছিলেন। এমন ঝলমলে এক ফুটবলারের শেষটা যে এতটা মলিন হবে, কে জানত! হয়তো অভিমানে ফুটবল দেখেন না। তবু সবকিছুর ঊর্ধ্বে এখনও চান ফুটবলের পাশেই থাকতে।

কাতার বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা দলের স্টাফ হয়ে কাজ করতে, আমরা এখনও বিষয়টি নিয়ে কথা বলছি। তাপিয়া দারুণ একজন মানুষ, তিনি সর্বদা আমাকে দলের সঙ্গে কাজ করার কথা বলে যাচ্ছেন। আসলে আমি দলটাকে ভালোভাবে চিনি। সবার সঙ্গে আমার বোঝাপড়া দারুণ। আমি চাই ওই সময়টায় তাদের কাছাকাছি থাকতে, উপভোগ করতে। নিজের জায়গা থেকে কিছুটা হলেও দলকে সাহায্য করতে চাই।

হুট করে হার্টের সমস্যা ধরা পড়ায় নিজেও বিস্মিত হয়েছেন আগুয়েরো। সেজন্য কোনো কারণ থাকতে পারে বলেও উল্লেখ করেছেন এভাবে হঠাৎ করেই হার্টের সমস্যা হয়, যেটা আমাকে অবাক করেছিল। আমি নিয়মিত এর কারণ উদ্ঘাটন করতে থাকি। সবসময় মাথায় একটা প্রশ্ন ঘুরপাক খায়, এটা করোনার কারণে বা কভিড টিকার কারণে হলো না তো। হ্যাঁ, এখন আমি স্বাভাবিক আছি। সবকিছু ঠিকঠাক চলছে।