অবান্তর মন্তব্যে নৈতিকভাবেই রাবি ছাত্র উপদেষ্টা নিজস্ব পদে থাকতে পারে না


resma প্রকাশিত: ১২:৩৫ অপরাহ্ণ ১৪ মে , ২০২২
অবান্তর মন্তব্যে নৈতিকভাবেই রাবি ছাত্র উপদেষ্টা নিজস্ব পদে থাকতে পারে না

মীর কাদির, রাবি প্রতিনিধি : নারী শিক্ষার্থীদের নিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টার অবান্তর মন্তব্যের কারণে তিনি নৈতিকভাবেই ছাত্র উপদেষ্টার মতো গুরুত্বপূর্ণ পদে বহাল থাকতে পারেন না বলে মনে করে ছাত্র ফেডারেশন। এছাড়া নারী শিক্ষার্থীদের নিয়ে রাবি ছাত্র উপদেষ্টার বক্তব্য প্রত্যাহার এবং সান্ধ্য আইন বাতিলের দাবি রাবি ছাত্র ফেডারেশনের।

শনিবার (১৪ মে) এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এসব দাবি জানান সংগঠনটি।বিষয়ে সংগঠনটির নেতৃবৃন্দ বলেন, আমরা সংবাদ মাধ্যমে দেখলাম নারী শিক্ষার্থীদের হলে প্রবেশের সময়সীমা কমিয়ে আনার বিষয়ে ছাত্র উপদেষ্টা বলেন নারী শিক্ষার্থীরা এলোমেলো জীবনযাপন করে। তার এমন মন্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। এই বক্তব্যের মাধ্যমে তিনি নারী শিক্ষার্থীদেরকে হেয় প্রতিপন্ন করেছেন। আমরা দাবি করছি তিনি তার বক্তব্যের জন্য ভুল স্বীকার করে তার বক্তব্য প্রত্যাহার করবেন। তিনি কিসের ভিত্তিতে এমন মন্তব্য করেছেন তার জবাবদিহি তাকে করতে হবে।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, সান্ধ্য আইন বিশ্ববিদ্যালয়ের ধারণার সাথে সাংঘর্ষিক। যা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনৈতিক এবং শিল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতি সর্বোপরি উন্মুক্ত জ্ঞান চর্চার পথ বন্ধ করে দেয়। ফলে এই শিক্ষার্থীদের মুক্ত বিকাশ ও মনন গঠনে অচিরেই সান্ধ্য আইন বাতিল করতে হবে।শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে নেতৃবৃন্দ বলেন, সান্ধ্য আইন বাতিলের দাবিতে নারী-পুরুষ সকল শিক্ষার্থীকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। এই সান্ধ্য আইন বাতিলের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে বাধ্য করতে হবে।