এশিয়া কাপেই মাঠে ফিরতে চান সোহান


sraboni প্রকাশিত: ৫:০৪ অপরাহ্ণ ৩ আগস্ট , ২০২২
এশিয়া কাপেই মাঠে ফিরতে চান সোহান

খেলাধুলা  ডেস্ক: আঙ্গুলের ফ্র্যাকচারটাই যত সর্বনাশের মূল। নুরুল হাসান সোহান আঙ্গুলে ব্যাথা পেয়ে মাঠের বাইরে ছিটকে না পড়লে হয়ত শেষ ম্যাচ খেলতেন নুরুল হাসান সোহান। কে জানে টি-টোয়েন্টি সিরিজ বিজয়ীও হতে পারতেন এ উইকেটকিপার কাম ব্যাটার; কিন্তু ইনজুরি বাঁধা হয়ে দাঁড়ানোয় পুরো জিম্বাবুয়ে সফর থেকেই ছিটকে পড়তে হয়েছে তাকে।টি-টোয়েন্টির সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচ খেলতে পারেননি। আর ওয়ানডে সিরিজ খেলাও সম্ভব নয়। ফলে দেশে ফিরে আসতে হলো টি-টোয়েন্টি অধিনায়ককে। মঙ্গলবার রাতে জিম্বাবুয়ে থেকে দেশে ফিরে এসেছেন সোহান।

ইনজুরি কী অবস্থা? কবে নাগাদ মাঠে ফিরতে পারেন? এ প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন তিনি। জানিয়েছেন, এশিয়া কাপেই মাঠে ফেরার আশায় আছেন। সোহান বলেন, ‘ইনশাআল্লাহ, আশা করি এশিয়া কাপের আগে সেরে উঠব। কাল একটা এপয়েন্টমেন্ট আছে (ডাক্তারের সাথে)। এটার ওপর নির্ভর করছে। ইনশাআল্লাহ ৩ সপ্তাহের মধ্যে সেরে উঠব। ফ্র্যাকচার আছে, হাঁড় একটু সরে গেছে। আজ গতকালের (সোমবার) চেয়ে একটু ভালো।’

ইনজুরির কারণে সিরিজ নিশ্চিতের ম্যাচ খেলা হয়নি। জিম্বাবুয়ের কাছে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ পরাজয় সম্পর্কে তার মূল্যায়ন কি? এ হারকে কিভাবে দেখছেন? জানতে চাওয়া হলে সোহানের জবাব, ‘অবশ্যই খারাপ তো লাগবেই। হারলে তো খারাপ লাগবেই। আমিও থাকতে পারিনি, নিজের কাছে খারাপ লাগছে।’

তবে যেহেতু তিনি বিমান ভ্রমণে ছিলেন, তাই ম্যাচ দেখা হয়নি। এ কারণেই খেলা নিয়ে একটি কথাও বলতে নারাজ প্রথম দুই টোয়েন্টি ম্যাচের ক্যাপ্টেন, ‘আমি শেষ ম্যাচ দেখিনি। তাই কোনো মন্তব্য করতে পারছি না। তবে নিজের জায়গা থেকে সবাই খুব চেষ্টা করেছে।

জিম্বাবুয়ের কাছে টি টোয়েন্টি সিরিজ পরাজয় কি এশিয়া কাপে কোন নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া ফেলবে? সোহান তা মনে করেন না। তার ব্যাখ্যা, ‘এশিয়া কাপের এখনও সময় আছে। ভিন্ন একটা টুর্নামেন্ট। মনে হয় না ওরকম প্রভাব ফেলবে না।’

এশিয়া কাপে টিম বাংলাদেশের সম্ভাবনা কতটা? তার আগে কি করনীয়? জানতে চাওয়া হলে সোহানের উত্তর, ‘টি-টোয়েন্টিতে আমাদের উন্নতির অনেক জায়গা আছে। শ্রীলঙ্কা-আফগানিস্তান দুটো দলই খুব ভালো প্রতিপক্ষ। আমরা নিজেদের শতভাগ দিয়ে ঘাটতির জায়গাগুলোয় কিছুটা উন্নতি করলেও ইনশাআল্লাহ ভালো ফলাফল হবে। উন্নতির জায়গায় মনোযোগ দিতে হবে যাতে এশিয়া কাপ ও বিশ্বকাপে ভালো করতে পারি।

এনামুল হক বিজয় আর নাজমুল হোসেন শান্ত জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে রান পাননি। তা নিয়ে অধিনায়ক হিসেবে তার ব্যাখ্যা কী? সোহানের কথা, ‘টি-টোয়েন্টিতে সবাই যে প্রতিদিন রান করবে এমন না। খেলোয়াড়দের খারাপ সময় ভালো সময় দুটাই যায়। কারও ভালো হচ্ছে বা খারাপ হচ্ছে এভাবে মন্তব্য করার চেয়ে আমার মনে হয় যার ভালো যাচ্ছে তাকে সমর্থন করা এবং যার খারাপ যাচ্ছে তার পাশে থাকা জরুরি।’

সোহান মনে করেন টি টোয়েন্টি সিরিজে না পারলেও ওয়ানডে সিরিজে টাইগারদের সম্ভাবনা যথেষ্ঠ। সোহান মনে করেন ওয়ানডেতে বাংলাদেশ তুলনামুলক বেটার দল। আমরা টি-টোয়েন্টির তুলনায় ওয়ানডেতে অনেক ভালো। ইনশাআল্লাহ ওয়ানডেতে আমরা খুব ভালো কিছু করব।’