চুয়াডাঙ্গায় শিলাবৃষ্টির তাণ্ডব, কৃষকের মাথায় হাত


sujon প্রকাশিত: ৮:১৮ অপরাহ্ণ ২৭ ফেব্রুয়ারি , ২০২২
চুয়াডাঙ্গায় শিলাবৃষ্টির তাণ্ডব, কৃষকের মাথায় হাত

জেলা প্রতিনিধি, চুয়াডাঙ্গা : চুয়াডাঙ্গায় শিলাবৃষ্টি ও দমকা হাওয়ার তাণ্ডবে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। রোববার বেলা ৩টা ১০ মিনিট থেকে ৪টা পর্যন্ত ঝড়-বৃষ্টি হয়। এ সময় বৃষ্টির সঙ্গে বড় বড় বরফের টুকরা পড়তে থাকে। টানা প্রায় ১০ মিনিট ধরে শিলাবৃষ্টিতে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন অনেকে।

চুয়াডাঙ্গায় আবহাওয়া ও কৃষি অধিদপ্তর বলছে, চুয়াডাঙ্গাবাসী এর আগে এমন শিলাবৃষ্টি দেখেনি। কৃষকদের ফসলের এমন ক্ষয়ক্ষতি আগে কখনো হয়নি। আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সামাদুল হক বলেন, জেলায় ১৭ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। জেলার বিভিন্ন স্থানে এক ইঞ্চি পরিমাণের শিলাসহ ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার বেগে বাতাস বয়ে গেছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, শিলাবৃষ্টির ফলে রবি শস্যের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। বিশেষ করে পেঁয়াজ, ভুট্টা, গম, কলা, আমের মুকুুল, লিচু, সবজিসহ বিভিন্ন ফসলের ক্ষতি হয়েছে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানা যায়নি।

তবে ক্ষতিগ্রস্ত প্রান্তিক কৃষকরা সরকারের আর্থিক সহায়তা ছাড়া এ ক্ষতি পোষাতে পারবেন না বলে জানান। এ ছাড়া বিভিন্ন এলাকার দরিদ্র ও মধ্যবিত্তদের ঘরের টিনের চালে শিলা পড়ায় তা ফুটো হয়ে গেছে।

কৃষক আব্দুর রহমান জানান, আমি তিন বিঘা জমিতে ভুট্টার আবাদ করেছিলাম। আর এক বিঘা জমিতে তরমুজ চাষ করলাম। আজ ঝড় ও শিলাবৃষ্টিতে সব ভুট্টাগাছ ভেঙে শেষ হয়ে গেছে। তরমুজ ফুটো হয়ে গেছে। আমি এখন কী খাব। পরিবারকে নিয়ে পথে নামতে হবে বলে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার বেলগাছি গ্রামের ছাত্তার গনমাধ্যমকে বলেন, লোকজনের কাছে ঋণ নিয়ে দুই বিঘা জমিতে ভুট্টা আবাদ করেছিলাম। শিলাবৃষ্টি আর ঝড়ে ক্ষেতের সব ভুট্টা গাছ ভেঙে গেছে। জমিতে ভুট্টা চাষের আর কোনো সুযোগ নেই। এখন ঋণের কিস্তি পরিশোধ করব কীভাবে সেটাই ভাবছি।

সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা তালহা জুবায়ের বলেন, শিলাবৃষ্টির পর আমি ফসলের মাঠ পরিদর্শন করছি। সদরে ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। সব থেকে ভুট্টা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ ছাড়া তরমুজ, কুল, আমের মুকুলের ক্ষতি হয়েছে। তবে ধানের কম ক্ষতি হয়েছে। জেলার আলমডাঙ্গা, জীবননগরে তেমন বৃষ্টি হয়নি। দামুড়হুদা উপজেলার আংশিক ও সদর উপজেলাজুড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানান তিনি।