পাবনা ঈশ্বরদীতে যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার


resma প্রকাশিত: ৭:৩৮ অপরাহ্ণ ৯ মার্চ , ২০২২
পাবনা ঈশ্বরদীতে যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

মোহাম্মদ নুরুন্নবী, পাবনা:  ঈশ্বরদী উপজেলা বিয়ে না দেয়ায় গলায় রশি নিয়ে এক কিশোর আত্নহত্যা করেছে। আত্নহত্যা করা ঐ কিশোরের নাম হৃদয়। পরিবারের ওপর অভিমান করে গলায় ফাঁসি নিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে জানা যায়। সে ঈশ্বরদী উপজেলার মুলাডুলি ইউনিয়নের বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের মো. দুলালের হোসেনের ছেলে।

মঙ্গলবার (৯ মার্চ) গভীর রাতে নিজ ঘরে ডাবের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় হৃদয়ের মরদেহ দেখতে পায় পরিবারের সদস্যরা।

এলাকাবাসী ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, হৃদয় বিয়ে করতে চাইতো অনেক দিন ধরে। এ নিয়ে প্রায়ই পরিবারের সাথে অশান্তি করতো। কিন্তু নিদিষ্ট কোন কর্ম ও বিয়ের বয়স না হওয়ায় তাকে বিয়ে দেয়া সম্ভব হয়নি বলে জানান তার পরিবার ।

মঙ্গলবার (৮ মার্চ) গভীর রাতে হৃদয়ের কোন সাঁড়া শব্দ না পেয়ে তাকে ডাকাডাকি করলে, সে কোন কথা না বলায়, প্রতিবেশিদের ডেকে এনে দরজা ভেঙ্গে দেখি হৃদয়ের দেহ ডাবের সঙ্গে ঝুলছে। স্থানীয় বাসিন্দা আয়নাল হোসেন জানান, হৃদয় প্রায়ই বিয়ে করার জন্য বাবা মায়েকে বলতেন। একাধিকবার এ নিয়ে পারিবারিক ভাবে ঝগড়া-বিবাদ হয়েছে। প্রায় তিন মাসে আগে বিয়ের দাবিতে হৃদয় বিষপান করেছিলেন। তাকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করায় সে প্রাণে রক্ষা পেয়েছিলেন।

মুলাডুলি ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য (মেম্বার) বানেছ আলী প্রামানিক বলেন, আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে শুনতে পেলাম ছেলেটি বিয়ে করতে চেয়েছিল কিন্তু পরিবারের আর্থিক অবস্থা ভাল না। ছেলেটির নিদিষ্ট কোন কর্ম নেই। তাই ছেলের বাবা বলেছিল কিছুদিন পরে বিয়ে দিবে কিন্তু ছেলে না শুনে অভিমান করে আত্মহত্যা করেছে।

ঈশ্বরদী থানার এস আই রবিউল ইসলাম জানান, অনেকদিন ধরেই বিয়ের জন্য হৃদয় পরিবার কে বলে আসছিলো, বিয়ে না দেয়ায় হৃদয় পরিবারের প্রতি অভিমান করে আত্নহত্যা করেছে