বাধ্যতামূলক ও সংরক্ষিত সেনাদের যুদ্ধে ডাকা হচ্ছে না: পুতিন


rupali প্রকাশিত: ১২:১১ অপরাহ্ণ ৮ মার্চ , ২০২২
বাধ্যতামূলক ও সংরক্ষিত সেনাদের যুদ্ধে ডাকা হচ্ছে না: পুতিন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, বাধ্যতামূলকভাবে নিয়োগপ্রাপ্ত এবং সংরক্ষিত সেনাদের রণাঙ্গনে লড়াইয়ের জন্য ডাকা হচ্ছে না। ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে প্রকাশ করা এক ভিডিওতে তিনি এ কথা বলেন।

পুতিন বলেন, ‘আমি জোর দিয়ে বলতে চাই, সামরিক বাহিনীতে কর্মরত সেনারা শত্রুতায় অংশ নেয় না এবং ভবিষ্যতেও নেবে না… শুধু পেশাদার সামরিক ব্যক্তিদের দ্বারা অর্পিত দায়িত্বের সমাধান করা হয়। ’

বিপরীতে তুলনামূলকভাবে অনেক দুর্বল প্রতিপক্ষ ইউক্রেনের সামরিক প্রচেষ্টায় প্রচুর সাধারণ মানুষকে যুক্ত করা হচ্ছে।
পুতিনের বার্তাটির লক্ষ্য রাশিয়ার নারীদের কথিত উদ্বেগ দূর করা। তার ভাষায় এ বার্তার লক্ষ্য ‘এখন যুদ্ধে থাকা আমাদের সেনা এবং কর্মকর্তাদের মা, স্ত্রী, বোন, বধূ এবং প্রেমিকারা।  পুতিন বলেন, ‘আমি বুঝি আপনারা কীভাবে প্রিয়জনদের নিয়ে উদ্বিগ্ন থাকেন’।

ভিডিও ভাষণ জুড়ে রুশ প্রেসিডেন্ট নারীদের ‘আনুগত্য, নির্ভরযোগ্যতা এবং সমর্থনের’ কথা তুলে ধরেন। তিনি এতে বলেন, ‘প্রিয় নারীরা, আপনারা সংবেদনশীলতা, সহমর্মিতা ও আত্মিক উদারতা দিয়ে পৃথিবীকে আরো সুন্দর ও মায়াময় করে তোলেন। আপনারা প্রীতিকর কমনীয়তা আর বিস্ময়কর অন্তরের শক্তির মেলবন্ধন ঘটান। ’

তবে ২৪ ফেব্রুয়ারি বেসরকারি সংবাদমাধ্যম ‘দ্য ইনসাইডার’ এর প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন অনুসারে, ইউক্রেনে হামলা শুরুর আগে কিছু সংখ্যক বাধ্যতামূলক নিয়োগপ্রাপ্ত সাধারণ মানুষকে যুদ্ধে যেতে বাধ্য করা হয়েছিল বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে। বিবিসি স্বাধীনভাবে এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে পারেনি।

সূত্র: বিবিসি