রুদ্ধ অন্তরাল


sujon প্রকাশিত: ১:৪৩ অপরাহ্ণ ৫ মার্চ , ২০২২
রুদ্ধ অন্তরাল

রুদ্ধ অন্তরাল

        -সুলেখা আক্তার শান্তা

চেনা মানুষ হঠাৎ যখন অচেনা রূপান্তরে
চমকে উঠি অপার বিস্ময় আচ্ছন্ন করে।
রুদ্ধ আবেগ অশ্রু সজল
সিক্ত চোখে চেয়ে থাকি নিঃশব্দে।
তার দেওয়া ব্যথায় থেমে দেয় জীবন চলা।

নিজের অস্তিত্বের কাছে নিজেই হই আপন
সেখানে হয় না অন্য কেউ আপন
ঘুনেপোকায় ক্ষয়ে কাঠ যখন উন্মোচিত হয়
উপরন্তে ভেসে ওঠে ছোট ছোট বিন্দুর বিনাশ।
অস্পষ্ট ব্যথার আঘাত সেখানে থাকে না স্বাভাবিকতায়।
প্রকম্পিত হতো হৃদয়ের পরোতে পরোতে।
কেঁপে উঠে হৃদয় দেখে ক্ষয়িষ্ণু ক্রিয়া।

দৃশ্যমান হয় না আঘাত ঘুনে ধরা কাঠের মতো।
যন্ত্রণায় ভোগে হৃদয় অপ্রকাশিত চিহ্নে।
কখনো আঘাত ভেসে ওঠে অবয়ব মলিন হয়ে।
তবুও লুকিয়ে রাখি বুকের নিদারুণ যন্ত্রণা।
নিজেই সামলিয়ে থাকি হৃদয়ের অবলোকন যন্ত্রণা
তার দেওয়া আঘাত সযত্নে রাখি আড়াল করে
জীবন চলার পথ চলছি অনন্ত সংগ্রামে।

অন্তরের গহীনে ব্যথা যখন জাগ্রত হয় ভারী।
চেয়ে থাকি আকাশ প্রান্তে।
দেখি সাদা মেঘে ধূসর আঁধারে ঢেকে গেছে
নাকি ব্যথার আঘাতে ক্রন্দন ঝাপসা চোখে।

তখন কাউকেই দেখি না কাছে
নিজে থাকি ব্যথার অন্তরালে অবগুন্ঠিত।
অধিক কাউকে প্রাণে দিতে নাই ঠাই
জীবন হয় জর্জরিত ভারী ব্যথায়।