লিটনের ব্যাটে বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জিং স্কোর


asif প্রকাশিত: ৫:০৩ অপরাহ্ণ ৩ মার্চ , ২০২২
লিটনের ব্যাটে বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জিং স্কোর

ক্রীড়া ডেস্ক: দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে লিটন দাসের অর্ধশতকে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৫৫ রান তুলেছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। ফলে জিততে হলে আফগানদের করতে হবে ১৫৬ রান।

টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। উদ্বোধনী জুটিতে ওপেন করতে নামেন বিপিএল মাতানো মুনিম শাহরিয়ার ও মোহাম্মদ নাঈম। প্রথম ওভারে বেশ আত্মবিশ্বাসী মুনিম। কিন্তু সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি তিনি। মাত্র ২ রান করে আউট হন এই ওপেনার।

তৃতীয় ওভারে দুর্দান্ত এক ইয়র্কারে নাঈমকে তুলে নেন আফগান পেসার ফজলহক ফারুকি। আম্পায়ার সায় না দিলেও রিভিও নিয়ে নাঈমকে ফেরত পাঠালো আফগানিস্তান।

দলীয় ৪৭ রানে বাংলাদেশকে বিপদে ফেলে সাজঘরে ফিরলেন সাকিব আল হাসান। কাইসের বলে সুইপ করতে গিয়ে ফাইন লেগে মুজিবের তালুবন্দি হবার আগে ৬ বল খেলে মাত্র ৫ রান করেন তিনি।

সাকিব ফেরার পর লিটন-মাহমুদউল্লাহর ব্যাটে বড় জুটির আশায় ছিল বাংলাদেশ। ক্রিজে এসে কাইস আহমেদকে বিশাল ছক্কা মেরে শুরু করলেও ১০ রানের বেশি করতে পারেননি বাংলাদেশ অধিনায়ক। ৭ বলে ১ ছয়ে তিনি এই রান করেন। আজমতুল্লাহ ওমরজাইয়ের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে তিনি ফেরেন।

৪ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ প্রতিরোধ গড়েছে লিটন-আফিফের জুটিতে। এরপর ১৪তম ওভারে ৩ চার ও ২ ছয়ে ৩৪ বলে ক্যারিয়ারের পঞ্চম ফিফটি তুলে নেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও জিম্বাবুয়ের পর তৃতীয় কোনো দলের বিপক্ষে হাফ সেঞ্চুরি পেলেন লিটন। সর্বশেষ ২০২০ সালের মার্চে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সবশেষ অর্ধশতক পেয়েছিলেন তিনি।

দলীয় ১২৬ রানে ফারুকিতে পরাস্ত হন লিটন। আফগান পেসারের স্লোয়ারে ওমরাজাইয়ের তালুবন্দি হবার আগে ৪৪ বলে ৬০ রান করে ফিরলেন তিনি। স্কোরকার্ডে ১ রান যোগ হতেই লিটনের পথ ধরলেন আফিফও। সেট হয়েও ইনিংস লম্বা করতে পারেননি আফিফ। ২৪ বলে ২৫ রান করেন আফিফ। এছাড়া ৮ রানে অভিষিক্ত রাব্বি এবং ৫ রানে শেখ মেহেদি হাসান আউট হন। এদিকে ৩ রানে নাসুম এবং ৪ রানে শরিফুল অপরাজিত থাকেন।

আইসিসি টি-টোয়েন্টি র‍্যাংকিংয়ে আফগানিস্তানকে পেছনে ফেলার সুবর্ণ সুযোগ হাতছানি দিচ্ছে বাংলাদেশকে। এই সিরিজ জিততে পারলে টাইগাররা আফগানদের টপকে যাবে টি-টোয়েন্টি র‍্যাংকিংয়ে।

বর্তমানে বাংলাদেশের র‍্যাংকিংয়ের ৯ম স্থানে, রেটিং ২৩১। এক ধাপ এগিয়ে থাকা আফগানদের রেটিং ২৩২। দুই ম্যাচ সিরিজে বাংলাদেশ যদি ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতে যায়, তাহলে বাংলাদেশ ২৩৩ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে ৮ম স্থানে উঠে আসবে। আফগানদের রেটিং হবে ২২৭। যা তাদের নামিয়ে দেবে ১০ম স্থানে।

যদি সিরিজ ১-১ এ ড্র হয়, তাহলে কোনো দলেরই অবস্থান পরিবর্তন হবে না। পাল্টাবে না রেটিংও। তবে বাংলাদেশ যদি ২-০ ব্যবধানে হেরে যায় তাহলে ২২৮ রেটিং নিয়ে এক ধাপ পিছিয়ে ১০ম স্থানে চলে যাবে টাইগাররা।