শৈলকুপায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র আতর্কিত হামলায় আহত ৩


sujon প্রকাশিত: ২:১২ অপরাহ্ণ ২৩ ফেব্রুয়ারি , ২০২২
শৈলকুপায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র আতর্কিত হামলায় আহত ৩

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : ঝিনাইদহের শৈলকুপায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাজারে সংঘর্ষে ৩ জন আহত করার অভিযোগ উঠেছে ৷ বুধবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল সারে ১১টার দিকে উপজেলার শেখপাড়া বাজারের কুষ্টিয়া জেলার শান্তিডাঙ্গার গ্রামের বাসিন্দারা ব্যবসায়ীদের উপর আতর্কিত হামলা চালিয়েছে ।

 

জানা যায়, একুশে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের মফিজ লেকে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কথাকাটাকাটি হয় ঝিনাইদহের শৈলকুপার বাচ্চা ও কুষ্টিয়ার শান্তিডাঙ্গা গ্রামের বাচ্চাদের কথা-কাটাকাটি মধ্যে।  এক তরফা হামলাও চালায় শান্তিডাঙ্গা গ্রামের কিশোররা।  বিষয়টি এক পর্যায়ে মিমাংশা করে দেয় শান্তিডাঙ্গা গ্রামের মাতব্বর মেম্বার মিজানুর রহমান। বুধবার সকালে শৈলকুপা উপজেলার রাহাতন নেশা গালর্স স্কুলে টিকে নিতে উপস্থিত হয় উভয় গ্রুপের কিশোররা । সে সময়  শান্তিডাঙ্গা গ্রামের কলেজ, স্কুল পড়ুয়া ছাত্র, কৃষকসহ মোট ২০ জনের মতো হামলা চালায় শেখপাড়া  বাজারের ব্যবসায়ী জিবলু, তারেক ও মুরগি ব্যবসায়ী আনিচের উপর।

 

আহত জিবলুর রহমান বলেন, আমি কিছুই জানিনা।  আমি গালর্স স্কুলের দিকে যাচ্ছি, হটাৎ করে রাম দাঁ, দেশীয় অস্ত্র আমার চারপাশে ঘিরে ধরে।  আমি গাড়ি রেখে পাশের দোকানে পলানোর চেষ্টা করি। একপর্যায়ে তারা দোকানের ভেতরে প্রবেশ করে আমাকে আঘাত শুরু করে।  তাদের আঘাত খালি হাতে প্রতিহত করার চেষ্টা করি।  কিন্তু তারা আমার হাত পা এবং শরীরের বিভিন্নস্থানে আঘাত করে জখম করে। আমার পায়ে আঘাত  করে কেটে ফেলেছে ।

 

তিনি আরও বলে, আমি তাদের মুখে চিনি কিন্তু নাম জানিনা।তারা আমাকে, তারেক ভাইকে ও আনিচকে আহত করেছে। আমরা স্থানীয় চিকিৎসকদের দিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছি। পরবর্তীতে পুলিশ ও ঝিনাইদহ জেলা পরিষদের সবাকে সদস্য রেজাউল করিম খাঁ এসে পরিস্থিতি শান্ত করে।

 

এ বিষয়ে প্রত্যক্ষদোষীরা জানান, শান্তিডাংগা গ্রামের লোকজন বাজারে এসে বাচ্চাদের উপর হামলা করতে চাইছিলো হয়তো তাদের না পেয়ে বাজারের তারা আতর্কিত হামলা  চালিয়েছে।

 

কচুয়া তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এস আই আলমগীর জানান,  সকাল ১২টার দিকে শেখপাড়া বাজারে সাংঘর্ষের ঘটনা শুনতে পরে তৎক্ষণাৎ আমাদের ফোর্স পাঠায়। এছাড়াও আমার সহযোগী এ এস আই আনিচুর রহমান ও রামচন্দ্রপুর ক্যাম্পের ইনচার্জ শামীম আক্তার সেখানে উপস্থিত হয়।  আমদের উপস্থিতি লক্ষ করে উভয় পক্ষ বাজার ত্যাগ করে।  এখন বাজার পরিস্থিতি শান্ত।

 

রামচন্দ্রপুর তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এস আই শামিম আক্তার বলেন, আমরা সাথে সাথে উপজেলার শেখপাড়া বাজারে উপস্থিত হয়েছি। শৈলকূপা থানায় এখন পর্যন্ত লিখিত কোন অভিযোগ পায়নি। অভিযোগ পেলে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।  এখন বাজারে কোন হট্টগোল সৃষ্টি না হয় সেই বিষয়ে অবস্থান করছি।