সমাজকর্ম মানুষকে সাহসী ও উদার করে তোলে


sujon প্রকাশিত: ১:৫১ অপরাহ্ণ ১০ মার্চ , ২০২২
সমাজকর্ম মানুষকে সাহসী ও উদার করে তোলে

মশিউর রহমান আনন্দ। একজন উদ্যেক্তা, সমাজসেবক ও সাংবাদিক। লেখাপড়া করেছেন প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। তিনি উপভোগ করেন গণমানুষের নিয়ে কাজ করতে। এজন্য রুটিনমাফিক কোন চাকরিতে যুক্ত হননি তিনি। সম্প্রতি  চাকরি জীবন নিয়ে তিনি কথা  বলেছেন ইতিহাস প্রতিদিনের সাক্ষাৎকার নিয়েছেন জুনায়েদ ইকবাল শাওন

ইতিহাস প্রতিদিন: প্রাচ্যের অক্সফোর্ড ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ালেখা করেও কেন ক্যাডার সার্ভিস বা উচ্চতর পদের চাকরি করলেন না।
মশিউর রহমান আনন্দ: মুক্ত জীবনের আনন্দেই মশিউর রহমান আনন্দ কোন রুটিন চাকরিতে প্রবেশ করেনি।

ইতিহাস প্রতিদিন: সামাজিক সংগঠনের আপনার সম্পৃক্ততা অনেক বেশি বলে আমরা জানি। এ বিষয় সম্পর্কে জানতে চাই।
মশিউর রহমান আনন্দ: সামাজিক সংগঠন সমাজকর্মের একটি উৎস। সমাজকর্ম মানুষকে সাহসী ও উদার করে তোলে। এটি আমার জীবনে চাওয়া।

ইতিহাস প্রতিদিন: গণমাধ্যমে আপনার পদচারণা দীর্ঘ দিনের, এখানে কাজ করতে কেমন লাগে?
মশিউর রহমান আনন্দ: গণমাধ্যম গণমানুষের নিয়ে কাজ করে রাস্তা থেকে রাজপ্রসাদ। আমি এটা উপভোগ করি।

ইতিহাস প্রতিদিন: “আমি কী রকম ভাবে বেচেঁ আছি দেখে যারে নিখিলেশ” সুনিল গঙ্গপাধ্যায়ের এই কবিতা আপনার জীবনের অনুষঙ্গ কি?
জনাব মশিউর রহমান: এই কবিতাটির দর্শন আমার স্বপ্নকে ঘিরে রাখে। আমি এখানে থাকতে চাই।

ইতিহাস প্রতিদিন: ইতিহাস পরিবার থেকে আপনার শুভ কামনা রইল। আপনি সামনে আরো এগিয়ে যান, এই আশা ইতিহাসের পরিবারের।
জনাব মশিউর রহামন: ইতিহাস প্রতিদিন পরিবারের জন্য অনেক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞা।