সয়াবিন তেলের দাম নিয়ন্ত্রণের রিটের শুনানি পিছিয়ে ১৩ মার্চ


sujon প্রকাশিত: ২:৫৯ অপরাহ্ণ ৮ মার্চ , ২০২২
সয়াবিন তেলের দাম নিয়ন্ত্রণের রিটের শুনানি পিছিয়ে ১৩ মার্চ

বিশেষ প্রতিবেদক: সয়াবিন তেলের দাম নিয়ন্ত্রণে মনিটরিং সেল গঠন এবং নীতিমালা তৈরির নির্দেশনা চেয়ে জনস্বার্থে দায়ের করা রিটের শুনানি পিছিয়ে আগামী ১৩ মার্চ দিন ধার্য করেছেন হাইকোর্ট।

মঙ্গলবার বিচারপতি ফারাহ মাহবুব ও বিচারপতি এস এম মনিরুজ্জামানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই দিন ঠিক করে আদেশ দেন।

আদালতে রিটকারীর পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী অ্যাডভোকেট সৈয়দ মহিদুল কবির। তার সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী অ্যাডভোকেট মনির হোসেন।

এর আগে জনস্বার্থে গত রোববার দেশের বাজারে খোলা এবং বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম নিয়ন্ত্রণের নির্দেশনা চেয়ে জনস্বার্থে হাইকোর্টে রিট করা হয়।

রিটে বাণিজ্য সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (বিজি), প্রতিযোগিতা কমিশনের মহাপরিচালক, এফবিসিসিআই’র সভাপতি, ডেইলি স্টারের সম্পাদক, টিসিবি’র চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্টদের রিটে বিবাদী করা হয়েছে।

রিটে সয়াবিন তেলের দাম নিয়ন্ত্রণে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের নিষ্ক্রিয়তা কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, এই মর্মে রুল জারির আর্জি জানানো হয়েছে।

এ ছাড়া সয়াবিন তেল টিসিবি’র মাধ্যমে কেন আমদানি করা হচ্ছে না এবং সয়াবিন তেল টিসিবি’র মাধ্যমে আমদানি করার জন্য নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে রিটে।

একইসঙ্গে সয়াবিন তেল রেশন কার্ডের মাধ্যমে বিতরণ, সয়াবিন তেলের দাম বৃদ্ধিতে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে এবং ভোক্তা অধিকার আইন কেন সঠিকভাবে প্রতিপালন করা হচ্ছে না, এ বিষয়ে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তাকে বেআইনি ঘোষণা করতে রুল জারির আর্জি জানানো হয়েছে রিটে।

এর আগে ৩রা মার্চ সয়াবিন তেলের দাম বাড়ানোর বিষয়টি হাইকোর্টের নজরে আনেন ৩ জন আইনজীবী। তারা সয়াবিন তেলের দাম বাড়ানো নিয়ে একটি ইংরেজি দৈনিকে প্রকাশিত প্রতিবেদন আদালতের নজরে আনেন।

ইংরেজি দৈনিকের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের সুযোগ নিয়ে বাংলাদেশের এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী সয়াবিন তেলের দাম অস্বাভাবিক হারে বাড়িয়ে দিয়েছেন। ২রা মার্চ বাজারে ক্রেতাদের কাছ থেকে এক লিটার খোলা সয়াবিনের দাম রাখা হয়েছে ১৭৫ টাকা। অথচ সরকার এক লিটার খোলা সয়াবিনের দাম ১৪৩ টাকা নির্ধারণ করে দিয়েছে।