সাতক্ষীরার তালায় স্ত্রীর বিরুদ্ধে স্বামীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ!


resma প্রকাশিত: ৫:০১ অপরাহ্ণ ২ মার্চ , ২০২২
সাতক্ষীরার তালায় স্ত্রীর বিরুদ্ধে স্বামীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ!

এস কে কামরুল হাসান সাতক্ষীরা: সাতক্ষীরা তালা উপজেলার নগরঘাটায় স্ত্রীর পরকীয়ার জেরে স্বামীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
সে পাটকেলঘাটা থানার নগরঘাটা ইউনিয়নের মঠবাড়ি গ্রামের মোহাম্মদ আলী মোড়লের পুত্র গোলাম হোসেন (৪০)। ত্রিশমাইলে অবস্থিত রায়হান অটো রাইচ মিলে কাজ করতেন।

সোমবার (১মার্চ) ভোর রাতে গোলাম হোসনের স্ত্রী মোছা. রেহেনা খাতুন প্রচার দেয় তার স্বামী স্টোকে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। তবে নিহতের গলায় ফাঁস লাগানো আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, একই ইউনিয়নের আসাননগর গ্রামের হান্নান আলী মোড়লের মেয়ে মোছা. রেহেনা খাতুনের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে তাদের সংসারে দুই পুত্র নিয়ে সংসার করছিলেন তারা। বড় ছেলে নাজিম হাসান (২১) সাতক্ষীরা পলিটেকনিক স্কুল এবং কলেজে পড়েন। ছোট ছেলে মো. সাগর হোসেন পড়েন নগরঘাটার বঙ্গবন্ধু পেশাভিত্তিক স্কুলে।

নিহতের ভাই সাবেক ইউপি সদস্য আবুল কালাম আজাদ বলেন, আমার ভাই গোলাম হোসেনের বাড়ি থেকে আমার বাড়ি একশ থেকে দেড়শ গজ দূরে। সোমবার রাতে আমার ভাইয়ের ছেলে সাগর আমার বাড়িতে গিয়ে আমার আম্মাকে ডেকে বলে বাবার শরীর খারাপ। তখন আমি শুনতে পেয়ে এগিয়ে যেয়ে বলি শরীর খারাপ মানে? তখন ভাইপো বলে বাবার বুকের মধ্যে ব্যাথা করতেছে। আমি বললাম ডাক্তার ডাকো, এ কথা বলে আমি তক্ষুণি ওই বাড়ি চলে যায়। যেয়ে দেখি ভাই মারা গেছেন।
তিনি আরো বলেন, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করলে গলায় এবং হাতে কেনো দাগ থাকবে? গোলামের গলায় দাগ রয়েছে, এছাড়া হাতের দুই পাশে কাঁধের নিচে দাগ রয়েছে। আমার ধারণা গোলামের স্ত্রী তাকে মেরে ফেলেছে।

পাটকেলঘাটা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ও ঘটনার তদন্ত কর্মকর্তা কৃঞ্চপদ জানান, মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে নেওয়া হয়েছে। যেহেতু নিহতের গলায় সন্দেহজনক দাগ রয়েছে সেহেতু হয়তো তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে পরিবার থেকে অভিযোগ করা হচ্ছে। তবে সঠিক তথ্যের জন্য লাশের ময়না তদন্তের রিপোর্ট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত সঠিক ঘটনাটি বলা সম্ভব হচ্ছেনা