সৃষ্টিকর্তার কাছে যার একমাত্র চাওয়াই মানবসেবা


sujon প্রকাশিত: ২:০৬ অপরাহ্ণ ৮ মার্চ , ২০২২
সৃষ্টিকর্তার কাছে যার একমাত্র চাওয়াই মানবসেবা

 

রাজনীতি যে মানুষের জন্য তা প্রমাণ করছেন কোটচাঁদপুর ২ নং দোড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: আব্দুল জলিল বিশ্বাস। সুদীর্ঘ চাকুরী জীবনে আওয়ামী রাজনীতিতে নিজেকে উৎসর্গ করেও স্থানীয় রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের কারণে দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হন এবং বিপুল ভোটে জয়লাভ করেন। ফুরসত নেই সেই আনন্দ উপভোগ করার। মাটি মানুষের জন্য রাত দিন ক্লান্তিহীন কাজ করছেন। লক্ষ্য তাঁর একটাই জনসেবা ও মানব কল্যাণ। বাবার হাত ধরেই আওয়ামী রাজনীতিতে সপে দেন নিজেকে। বাবা ৫৪ সালের যুক্তফ্রন্ট নির্বাচনে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। সেই স্রোতধারা বয়ে চলেছে অবিরাম। রক্তে রাজনীতি, রক্তেই সেবা। ইতিহাস প্রতিদিনের সাথে তিনি তাঁর কর্ম পরিকল্পনা, পাওয়া না পাওয়া ও মানুষের সহযোগিতার কথা বলেছেন। সাক্ষাতকারের সহযোগী ইতিহাস প্রতিদিনের রুপালী।

ইতিহাস প্রতিদিন: আপনাকে অভিনন্দন, অভূতপূর্ব সফলতার জন্য। পারিবারিকভাবেই আপনাদের রক্তে রাজনীতি। এই বিজয়ে আপনার অনুভূতি……

চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল: প্রত্যেকটি বিজয়ই আনন্দের। আর তা যদি হয় স্থানীয় জনসেবার জন্য নির্বাচন তা অনিন্দ্য, যা মুখে প্রকাশ যোগ্য নয়। খুবই ভাল লাগছে । সৃষ্টিকর্তার কাছে আমার একমাত্র চাওয়াই মানবসেবা। সে সুযোগ তিনি আমাকে দিয়েছেন। আমি অশেষ কৃতজ্ঞ।

ইতিহাস প্রতিদিন: চাকরী জীবনে দীর্ঘদিন রেল শ্রমিকলীগের সাথে যুক্ত ছিলেন। ছিলেন সংগঠনের পশ্চিম অঞ্চলের সভাপতি। সেই রাজনীতির সাথে স্থানীয় রাজনীতির তফাৎ কোথায়?

চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল: সেটি ছিল একটি নির্দিষ্ট শ্রেণীর নির্দিষ্ট স্বার্থ সংশ্লিষ্ট। স্থানীয় রাজনীতি নানা মাত্রিক ও নানা আঙ্গিকের। এখানে সেবার ধরণ ও
পরিমাণ দুটোই বৈচিত্র্যময়। তবে স্থানীয় রাজনীতি রক্তের সাথে জড়িত। তাই এখানে আবেগ ও প্রচেষ্টা দুটোই বেশি।

ইতিহাস প্রতিদিন: আপনার সেবার পরিকল্পনাগুলো যদি আমাদের সাথে বিনিময় করতেন…..

চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল: মায়ের জন্যে মানুষ সব ত্যাগ করতে পারে। ২ নং দুড়া ইউনিয়নের মাটি ও মানুষ আমার মায়ের মতো। তাদের প্রত্যেকটা চাহিদা আমার কাছে মায়ের আদেশ। সেই মায়ের চিকিৎসা সেবা, রাস্তাঘাট সংস্কার ও উন্নয়ন, কিশোর অপরাধ ও মাদক নিয়ন্ত্রণ, বয়স্কভাতা,প্রতিবন্ধীদের বিশেষ সুবিধা প্রদান, পিছিয়ে পড়া মানুষের সাহসের উৎস হিসেবে সামনে থেকে কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা ও নারী শিক্ষার উন্নয়ন নিশ্চিত করাই আমার মনছবি।

ইতিহাস প্রতিদিন: আপনার পবিত্র স্বপ্ন সফল হোক, এই প্রত্যাশা ইতিহাস প্রতিদিনের। পথচলায় সহযাত্রী ইতিহাস প্রতিদিন।
চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল: ইতিহাস পরিবার আমার স্বপ্নগুলোর সঙ্গী হওয়ায় আমি
কৃতজ্ঞ। শুভকামনা ইতিহাস পরিবারের প্রতি।