স্ত্রীর ওপর স্বামীর এসিড নিক্ষেপের অভিযোগ


sraboni প্রকাশিত: ৮:৩৫ অপরাহ্ণ ২ মার্চ , ২০২২
স্ত্রীর ওপর স্বামীর এসিড নিক্ষেপের অভিযোগ

পটুয়াখালী প্রতিনিধি: পটুয়াখালীর গলাচিপায় এক সন্তানের জননী তনয়া (২০) নামের এক গৃহবধূকে এসিড নিক্ষেপ করে মুখমন্ডল ঝলসে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে স্বামী ও তার স্বজনদের বিরুদ্ধ। এ ঘটনায় গৃহবধূ তনয়ার বাম চোখ মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার (২ মার্চ) উপজেলার গুপ্তের হাওলা গ্রামে তনায়ার বাপের বাড়িতে।

ঘটনার পর স্থানীয়রা ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করে গলাচিপা হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসকরা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানিয়েছেন গলাচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ এমআর শওকত আনোয়ার ইসলাম।

পুলিশ ও গৃহবধূর পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গত প্রায় ৪ বছর আগে বরিশালের বাবুগঞ্জ এলাকার মৃত আবুল কাশেমের ছেলে মিলন খানের সঙ্গে গলাচিপা উপজেলার পানপট্টি ইউনিয়নের গুপ্তের হাওলা গ্রামের জলিল হাওলাদারের মেয়ে তনয়ার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই মিলন যৌতুকের দাবিতে তনয়াকে বিভিন্ন ধরণের নির্যাতন করে আসছিল। এক পর্যায়ে কিছুদিন তনয়া স্বামীর বাড়ি থেকে গলাচিপার পানপট্টি ইউনিয়নের গুপ্তের হাওলা গ্রামে বাপের বাড়ি চলে আসে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে স্বামী মিলন।

তনায়ার বড় ভাই ইভান হাওলাদার দাবি করে বলেন, মিলন ও তার স্বজনরা মিলে বুধবার (২ মার্চ) ভোরে ঘরের বেড়া কেটে ঘুমন্ত তয়নার শরীরে এসিড নিক্ষেপ করে। এতে তার বাম চোখ ও মুখমন্ডলসহ শরীরের বিভিন্ন অংশ ঝলসে যায়।

এ প্রসঙ্গে গলাচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ এমআর শওকত আনোয়ার ইসলাম বলেন, তনায়ার স্বামী মিলনের সাথে দীর্ঘদিন ধরে দাম্পত্য কলহ চলে আসছিল। এরই জের ধরে স্বামী মিলন এ ঘটনা ঘটাতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। পুলিশ তদন্ত করে ঘটনার সাথে জড়িতদের শীঘ্রই সনাক্ত করে গ্রেফতার করতে স্বক্ষম হবে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।